চার শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার মাদ্রাসা অধ্যক্ষ মুফতি জসিম

নিজ মাদ্রাসার চার আবাসিক শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের অভিযোগে মুফতি মোস্তাফিজুর রহমান জসিম নামে এক মাদ্রাসা অধ্যক্ষ কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। গতকাল (২৭ জুলাই) দুপুরে নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার ভূঁইঘর এলাকার দারুল হুদা আল ইসলাম মহিলা মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয় তাকে।

মুফতি জসিম ওই মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা ও অধ্যক্ষ। তিনি ছয় বছর ধরে ওই এলাকার আলাউদ্দিন মিয়ার বাড়ির নিচতলা ও দোতলা ভাড়া নিয়ে তিনি মাদ্রাসাটি পরিচালনা করে আসছিলেন।তিনি নিজেও স্ত্রী ও তিন সন্তানকে নিয়ে মাদ্রাসারই একটি কক্ষে বসবাস করেতেন। তার পৈত্রিক নিবাস নেত্রকোনা সদর উপজেলার কাওয়ালীকোন গ্রামে।

র‌্যাব ১১-এর উপাধিনায়ক মেজর নাজমুস সাকিব গণমাধ্যমকে জানান যে জসিমের ধর্ষণের শিকার মাদ্রাসার সাবেক দুই ছাত্রী তাদের কাছে এ বিষয়ে অভিযোগ করেন ও তারপর এই বিষয়ে তদন্ত শুরু হয়। তারা অভিযোগের প্রাথমিক ভাবে সত্যতা পেয়ে শনিবার দুপুরে তাকে গ্রেফতার করেন।

ভুক্তভোগী দুই শিক্ষার্থী তাদের কে আরও জানান যে অধ্যক্ষ জসিমের স্ত্রীর কাছে ঘটনা জানিয়েও তারা প্রতিকার পায়নি। জসিমের স্ত্রী তাদের কে চুপ থাকতে এবং কাউকে না জানাতে বলে হুমকি দেয়।

এই মাদ্রাসায় ৯৫ শিক্ষার্থী রয়েছে তাদের মধ্যে ৩০ জন আবাসিক। মাদ্রাসায় মোট ১৭ শিক্ষকের মধ্যে ১১ জন নারী এবং ছয়জন পুরুষ শিক্ষক রয়েছেন। জসিম মাদ্রাসার অফিস কক্ষে ছাত্রীদের ডেকে নিতেন ও কৌশলে রুমের দরজা আটকে দিয়ে মুখ চেপে ধর্ষণ করতেন। এই সময় কম বেশি সবাই মাদ্রাসাতে উপস্থিত থাকতেন তবে কেউ কিছুই বলত না ভয়ে।।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।