ডেঙ্গুতে অকালে চলে যাওয়া ঢাবি শিক্ষার্থীর ২২ ঘন্টার চিকিৎসার বিল ১ লাখ ৮৬ হাজার টাকা

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ইতিমধ্যেই প্রাণ নাশ হয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিন্যান্স বিভাগের স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থী ফিরোজ কবীরের। আর তার স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসা বাবদ খরচ দেখানো হয়েছে ১ লাখ ৮৬ হাজার। এই হাসপাতালে তিনি মাত্র ২২ ঘন্টা চিকিৎসাধীন ছিলেন।

এর আগে তিনি ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ঢাকা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। অবস্থা কিছুটা উন্নতি হলে তাকে তার গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁয়ে নিয়ে যান তার আত্মীয় স্বজনরা। কিন্তু সেখানে অবস্থার আবার অবনতি হলে, তাকে আবার ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় ও সেখান থেকে আরও ভাল চিনিৎসার জন্য আবার তাকে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করান তার স্বজনরা।

এখানেই তিনি ২২ ঘণ্টা যাপৎ চিকিৎসার পর মারা যান আর এ সময় তার চিকিৎসার বিল আসে ১ লাখ ৮৬ হাজার ৪৭৪ টাকা। এই বিলটি যে একদম ভুয়া ও মনগড়াভাবে করা হয়েছে তা প্রমাণিত হয়েছে। এ সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের প্রধান সম্পাদক গোলাম রাব্বানী ও জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মফিজুর রহমান উপসস্থিত ছিলেন। তারা বিলটি দেখেই সনাক্ত করেন, বিলটি সম্পূর্ণ ভূয়া ভাবে করা হয়েছে। বিভিন্ন দামী ওষুধের নামে বিলটি করা হয়েছে। অথচ রক্তেই কোন ক্রসম্যাচ করা হয়নি।

এ ঘটনায় ক্ষিপ্ত হয়ে উঠেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। শিক্ষার্থীদের একাংশ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্কয়ার হাসপাতালকে বয়কটের ঘোষণা দিয়েছেন ।

 

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।