এই অদ্ভুদ ও ভয়ংকর প্রাণীটির দেখা মেলে তাইওয়ানে সমুদ্রের নিচে। সম্প্রতি তাইওয়ানে সমুদ্রের অদুরে এই সাপের মতো দেখতে প্রাণীটি পাওয়া যায়। বিজ্ঞানীরাও এই প্রাণীকে সাপ বলে মনে করে কিন্তু পরে অবশ্য ভুল ভাঙে।

প্রাণীটি বিরল প্রজাতির একটি ভাইপার শার্ক, এর অন্য নাম ‘এলিয়েন ফিশ’। এর বিজ্ঞানসম্মত নাম ‘ট্রাইগোনোগন্যাথাস কাবেয়াই’। ভয়ঙ্কর চেহারার জন্য এই হাঙরকে বলা হয় নরকের মাছ । এর শেষ দেখ মিলেছিল ১৯৮৬ সালে জাপানের শিকোকু দ্বীপে, তারপরে বিজ্ঞানীরা মনে করেছিল হয়তো এই প্রজাতিটি বিলুপ্ত হয়েছে। কিন্তু এতদিন কেন তাদের দেখা যায়নি তা নিয়ে সবার কল্পনার শেষ নেই।

অন্যদিকে সমুদ্রের এক থেকে দেড় হাজার ফুট নিচে থাকে এই প্রজাতি তাহলে কেনইবা তাদেরকে সমুদ্রের অদুরে পাওয়া যাচ্ছে। এরা খুব ভয়ঙ্কর প্রজাতির হাঙর, এদের দাঁত সূঁচালো আর বাঁকানো, শিকার ধরার সময় দাঁতগুলো মুখগহ্বর থেকে বাইরে বেরিয়ে আসে এদের। এরা নিজের শরীরের আকৃতির তুলনায় বড় মাছ শিকার করতে পারে।