নিয়মিত রাত জাগলে যে ভয়ানক পরিণতি হবে

যারা অনেক রাত পর্যন্ত জেগে থাকে ও দেরিতে ঘুমায়, তারা যারা তাড়াতাড়ি ঘুমায় তাড়াতাড়ি উঠে এমন লোকদের তুলনায় অনেকটাই অসুস্থ ও কর্মদক্ষতাহীনতায় ভুগে থাকে। অনেকেই আছে অহেতুক রাত জাগে। অনেকেই আছে রাতে কাজ করতে পছন্দ করেন, তাদের যুক্তি রাতে কোলাহলবিহীনভাবে নিড়িবিলি কাজ করা যায়। অনেকেই আবার রাত জাগাটাকে ফ্যাশান বলে মনে করে। আবার অনেকে রাত জেগে টিভি দেখতে বা মুভি দেখতে বা গেম খেলতে ভালবাসে। অনেকেই আছে যারা রাত জেগে মোবাইলে কথা বলে কিংবা সোসাল মিডিয়াতে অহেতুক সময় নষ্ট করে। কিন্তু তারা জানেনা যে এই রাত জাগার ফলে তাদের জীবনে কি কি ক্ষতি হতে পারে। নিয়মিত রাত জাগার ফলে যে মারাত্মক রোগগুলি হয়ে থাকে-


ডায়াবেটিস
হৃদ্ররোগ
খিটখিটে মেজাজ
অতিরিক্ত স্থূলতা
চুল পড়া
ত্বকের সমস্যা
খবারে অনীহা
স্মৃতি শক্তি হ্রাস
চোখ বসে যাওয়া ও চোখের নীচের কালো দাগ
অলসতা ও কর্মদক্ষতাহীনতা
মাথা ব্যথা
পেটের পীড়া
মানসিক রোগী

অর্থাৎ রাত জাগার ফলে এমন কোন রোগ নাই, যা শরীরে বাসা বাধে না। তাই আমাদের উচিত এই অভ্যাসটি ত্যাগ করা। কিন্তু রাতারাতি এই অভ্যাসটি ত্যাগ করা সম্ভব নয়। ধীরে ধীরে এই অভ্যাসটির পরিবর্তন করতে হবে ও তাড়াতাড়ি ঘুমাতে যাবার অভ্যাস করতে হবে। কিছু নিয়ম নিয়মিত কিছুদিন অনুসরণ করলে এই রাত জাগার অভ্যাস থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব।

নিয়মগুলি হলঃ

রাত ১০ টার পর সকল প্রকার টিভি, মোবাইল, বন্ধ করা
রাতে ঘুমাতে যাবার আগে ব্যায়াম করা, যাতে শরীরে ক্লান্তি ভাব আসে।
চা কফি ঘুমের ৬ ঘন্টা আগে না খাওয়া
দিনের বেলা না ঘুমানো
ঘুমতে যাবার আগে উষ্ণ গরম পানিতে গোসল করা
রাতে কলা, খেজুর , মধু খাওয়া
মানসিক টেনশন, দুঃচিন্তা ঝেড়ে ফেলা

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।