মিন্নি বেশিদিন বাঁচবে না!

২৮ জুলাই বরগুনায় চাঞ্চল্যকর রিফাত শরীফ হত্যার ঘটনায় প্রধান সাক্ষী ও রিফাতের স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নি। মিন্নিকে প্রথমে সাক্ষী বলা হলেও ঘটনার জট খুলতে খুলতে এখন মিন্নি নিজেই আসামি। তবে মিন্নি আর বেশি দিন বাঁচবেন না। এই কথাটি স্বয়ং মিন্নি নিজেই তার বাবা কে বলেছেন।

২৭ জুলাই সকাল সাড়ে ১০ টায় জেলগেটে মিন্নির সাথে দেখা করেন তার বাবা মোজাম্মেল হোসেন কিশোর। সেখান থেকে বেরিয়ে এসে তিনি বলেন যে, তার মেয়ের অবস্থা খুব খারাপ, সে ঠিক মত দাঁড়িয়ে থাকতেও পারছে না। মিন্নি সে সময় তার বাবাকে বলেন যে আব্বু, আমি আর বাঁচব না।

মিন্নির বাবা কিশোর অভিযোগ করেন যে তিনি মিন্নির সাথে ঠিকমত কোন কথা বলতে পারেনি। মিন্নির সাথে গোয়েন্দারা দাঁড়িয়ে থাকায় তিনি খুব বিরক্ত হন ও ঠিক মত কথা বলতে না পেরে, তিনি ৪ মিনিট কথা বলে সেখান থেকে বেড়িয়ে আসেন।

প্রসঙ্গত, ২৬ জুন সকাল ১০টার দিকে বরগুনা সরকারি কলেজের মূল ফটকের সামনের রাস্তায় রিফাত শরীফকে স্ত্রী আয়েশা সিদ্দিকা মিন্নির সামনে কুপিয়ে জখম করা হয়। সেইদিন বিকাল ৪টায় বরিশালের শেরেবাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তার মৃত্যু হয় রিফাতের, পরে এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে মিন্নিকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।