মেয়েদের কিডনি না হলেও চলে

এই অসহায় মেয়েটির নাম কাঞ্চানা কুমারি, সে বিহারের শেখপুর বিভাগের সদর ব্লকের আভগিল গ্রামের বাসিন্দা। কাঞ্চানা এখন বিহারের সরকারি হাসপাতালে জীবন মৃত্যুর মাঝামাঝি ঝুলে আছে। তার এই বর্তমান অবস্থা নিয়ে তার পরিবারের কোন চিন্তা নেই, কারণ সে একটি মেয়ে।

কাঞ্চানা এই বছর তার এলাকার সরকারী বিদ্যালয় থেকে প্রথম বিভাবে ম্যাট্রিক পাশ করে। তার মনে চলছিল খুশির বন্যা, তার মত একজন গরীব ঘরের মেয়ের জন্য এটি বিশাল বিষয় কিন্তু তার কপালে হয়তো এই খুশি বেশি দিনের জন্য ছিল না।

রেজাল্টের কিছু দিন পর থেকেই সে অসুস্থ হতে শুরু করে ও যখন তার পরিবার তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে তখন ডাক্তার তাদের জানায় যে কাঞ্চানার দুইটি কিডনি নষ্ট হয়ে গেছে। আর তাকে যদি খুব তাড়াতাড়ি নতুন একটি কিডনি না দেওয়া হয় তাহলে সে মারা যাবে।

এই রকম একটি অবস্থায় সাধারণত পরিবার অনেক চেষ্টা করে তাদের সন্তান কে বাঁচানোর কিন্তু কাঞ্চানা পরিবার এমন টি করেন নি।কাঞ্চানার বাবা সরাসরি জানিয়ে দেয় যে তাদের কেউ কিডনি দিতে পারবে না বা এই কিডনির জন্য কোন টাকাও দিতে পারবে না।

তাদের কাছে থেকে এর কারণ জানতে চাওয়া হলে তারা বলে যে, কাঞ্চানা একটি মেয়ে মানুষ আর একটি মেয়ে সন্তানের জন্য তারা এসব কিছুই করতে পারবেন না, মেয়েদের কিডনি না হলেও চলে। এই বিষয়ে কাঞ্চানার মা ও তার সাথে একমত।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।