যে ৩ টি কসমেটিক প্রডাক্ট কিনে আপনি শুধু শুধু টাকা নষ্ট করছেন

বিভিন্ন সমীকরণ অনুসারে একজন মহিলা গড়ে ৪ থেকে ৫ ধরনের কসমেটিক প্রডাক্ট নিয়মিত ব্যাবহার করে থাকেন। কিন্তু মজার বিষয়টি হল তাদের ব্যবহার করা এই সব প্রডাক্টের মধ্যে এমন ৫ টি প্রডাক্ট রয়েছে যা সত্যিকার অর্থে কোন কাজেই আসে না। এখন আপনার মনে হতে পারে কাজে আসে না এর মানে টা কি, কারণ কাজে না আসলে শুধু তারা এই প্রডাক্ট গুলো ব্যাবহার করতে যাবে কেন? তারা এই প্রডাক্ট গুলো ব্যবহার করে কারণ তারা মনে করে যে এগুলো কাজে দিবে যা তা বিজ্ঞাপনে দেখেছে বা ছোট কাল থেকে এই ভাবেই ব্যবহার করে অভ্যস্ত।

ফেয়ারনেস ক্রিম

আপনার হয়তো মনে হতে পারে যে ফেয়ারনেস ক্রিম আপনার ত্বকে কাজ করে কিন্তু এমনটি মোটেও নয়। যে কোন ধরনের ফেয়ারনেস ক্রিম, সেটা যত দামি ব্রান্ডের হোক না কেন তা আপনার ত্বকে বাস্তবিক অর্থে কোন কাজ করে না। আপনি তা যতদিন ব্যবহার করবেন শুধুমাত্র ততদিন তা আপনার ত্বকের উপর একটি হাল্কা প্রভাব বজায় রাখে আর আপনি যখন তা আর ব্যবহার করবেন না তখন তার আর কোন উপকার অবশিষ্ট থাকে না। আবার বাজারে এই রকম অনেক ক্রিম আছে যা ব্যবহারে আপনার ত্বক আগের থেকে ফর্সা হয়ে উঠে কিন্তু এই ক্রিম আপনার ত্বকের নানা ধরনের ক্ষতি করে থাকে।

চুল ফাটা ঠিক করার তেল বা শ্যাম্পু

আপনার চুল যদি একবার ফেটে যায় তাহলে তা আর ঠিক হওয়া সম্ভব না, এ টি ঠিক করার জন্য আপনি হয়তো নানা ধরনের তেল বা শ্যাম্পু ব্যাবহার করেছেন বা করেন কিন্তু এতে আসলে আপনার কোন উপকার হয় না। এই চুল ফাটা বন্ধের তেল বা শ্যাম্পু আপনার ফেটে যাওয়া চুলের অংশ কে শুধুমাত্র সোজা করে রাখে যার ফলে আপনার মনে হয় যে আপনার চুল ফাটা বন্ধ হয়ে গেছে বা আপনার ফেটে যাওয়া চুল ঠিক হয়ে গেছে।চুল ফাটা ঠিক করার আসলে কোন উপায় নেই, আপনার যদি চুল ফেটে থাকে তাহলে তা কেটে ফেলুন ও ভাল ভাবে চুলের যন্ত নিন যাতে তা পুনরায় না ফেটে যায় ।

নারিকেল তেল

এই প্রডাক্ট গুলোর মধ্যে সবার আগে যেটি রয়েছে তা হল নারিকেল তেল। আমাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষ ( নারী ও পুরুষ উভয়ই ) নারিকেল তেল মাথায় ব্যবহার করে থাকি কিন্তু এই রকম অনেকে আছে যারা এই নারিকেল তেল কে মশ্চারাইজার হিসাবে মুখে বা শরীরে ব্যবহার করে থাকে। এই তেল মাথায় দিলে চুলে ভাল ধরনের মশ্চারাইজার হিসাবে কাজ করে কিন্তু ৮৭% সময় এটি মুখের বা শরীরের ত্বকে কাজ করে না বরং সমস্যার সৃষ্টি করে। বিশেষ করে যাদের ত্বক তৈলাক্ত ধরনের তাদের ত্বকে এটি আরও বেশি সমস্যার তৈরি করে, এমন কি সেটি মুখে না ব্যবহার করে মাথায় ব্যাবহার করলেও মুখের পোরস গুলো ব্লক করে ও ব্রণ আর ব্লাক হেডস সৃষ্টি করে। তাই আপনাদের যাদের ত্বক তৈলাক্ত ধরনের তারা মাথায় নারিকেল তেল দেওয়ার সময় সাবধানে দিবেন যাতে তা মুখে না গড়িয়ে আসে।