যে ৩ টি কারণে আপনার ভালবাসার মানুষটি আপনাকে ছেড়ে যেতে পারে

আপনি আপনার ভালবাসার মানুষটিকে অনেক ভালবাসেন, আর সেও হয়তো আপনাকে অনেক ভালবাসে, কিন্তু তারপরেও কি আপনাদের সম্পর্কে টানাপোড়ন চলছে? যদি আপনার উত্তরটি হয় হ্যাঁ, তাহলে বিষয়টিকে এড়িয়ে জাবেন না বা সময়ের সাথে ঠিক হয়ে যাবে এমনটিও মনে করবেন না। আপনাদের সম্পর্কে টানাপোড়ন যদি অব্যাহত থাকে তাহলে খুব তাড়াতাড়ি আপনাদের সম্পর্কে ফাটল ধরতে পারে যা ব্রেকাপে পরিণত হতে পারে।

তাই আর দেরি না করে নিচের কারণগুলোর সাথে আপনার ব্যবহার মিলিয়ে দেখুন আর যে কারন গুলো আপনার সাথে মিলে যাবে তা এখনই সংশোধন করুন।

কারণঃ ১


যদি সে আপনার উপর থেকে আস্থা হারিয়ে ফেলে। এইটি হচ্ছে সর্ব প্রধান কারন, আপনার ভালবাসার মানুষটি যদি আপনার উপর থেকে আস্থা হারিয়ে ফেলেে তাহলে আপনার সাথে তার সম্পর্কে টানাপোড়ন শুরু হয় ও আপনার প্রতি তার ভালবাসা কমে যেতে থাকে।আস্থা হারিয়ে ফেলার অনেক রকম কারন রয়েছে যেমন আপনি যদি তার কোন বিপদে তার পাসে না থাকেন, কিংবা সে আপনার কাছে কোন পরামর্শ চাইলে আপনি বিরক্ত বোধ করেন। অথবা তার প্রয়োজন বা অন্য কোন বিষয় নিয়ে আপনি অনাগ্রহ প্রকাশ করলে। এছাড়াও আর অনেক ছোট ছোট বিষয় আছে যা আপনার সঙ্গী আপনার থেকে আশা করে তা নিয়ে আপনার অনিহা থাকেলেও সে আপনার প্রতি আপনার উপর থেকে আস্থা হারিয়ে ফেলে।

কারণঃ ২

সে যদি আপনার চাওয়া পাওয়া তে বিরক্ত হয় তাহলেও সে আপনাকে ছেড়ে যেতে পারে। একটি ভালবাসার সম্পর্কের শুরুতে সবাই সবার চাওয়া পাওয়ার দিক গুলোকে মাথায় রাখে ও সে ভাবে সব কিছু করার চেষ্টা করে, কিন্তু যখন সম্পর্কের বয়স বাড়তে থাকে তখন এই বিষয় গুলো অন্য রকম হয়ে যায়। এখন যদি আপনি সব সময় আপনার চাওয়া পাওয়া নিয়ে ভাবতে থাকেন আর আপনার সঙ্গী আপনার কাছে থেকে কি আশা করে তা নিয়ে না ভাবেন তাহলে আপনাদের সম্পর্কে চিড় বাঁধতে সময় লাগবে না। একটি কথা সব সময় মাথায় রাখবেন আপনিও যেমন তার কাছে থেকে অনেক কিছু আশা করেন ঠিক তেমন ভাবে সেও আপনার কাছে থেকে অনেক কিছু আশা করে।

কারণঃ ৩

যখন আপনার চোখ থাকে অন্য সবার দিকে। সম্পর্কের শুরুতে আপনার সঙ্গী আপনার কাছে থাকে সব থেকে আকর্ষণীয় কিন্তু যখন সম্পর্কের বয়স বাড়তে থাকে তখন যদি আপনার চোখ থাকে অন্য সবার দিকে থাকে তাহলেও আপনার সাথে তার সম্পর্কে টানাপোড়ন শুরু হয় ও আপনার প্রতি তার ভালবাসা কমে যেতে থাকে।

তাবে সম্পর্কে টানাপোড়ন কম বেশি সব মানুষেরই থাকে কিন্তু বুদ্ধিমানের কাজ হচ্ছে সময় থাকতে নিজেকে শুধরে নিয়ে সম্পর্কে চিড় বাঁধতে না দেয়া।

এই পোস্টটি অন্যদেরকেও জানাতে শেয়ার করুন।