যে ৫ টি লক্ষণ দেখে আপনি বুঝে নিতে পারবেন যে আপনার হার্ট অ্যাটাক হবে

আমরা সবাই কম বেশি শুনে থাকি যে কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই কারও হার্ট অ্যাটাক হয়েছে বা হুট করে কেউ হার্ট অ্যাটাক করে মারা গেছে। আসলেই কি এটি সত্যি যে হুট করে কোন কিছু বুঝে উঠার আগেই হার্ট অ্যাটাক হয়ে যায়? বিষয়টি সত্যি মনে হলেও এটি সত্যি না। আমাদের শরীর আমাদের হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ১ মাস আগে থেকে সংকেত দেয় কিন্তু আমরা সেই লক্ষন বা সংকেত বুঝতে পারি না। যার ফলে আমারা আগে থেকে হার্ট অ্যাটাক রুখার জন্য কোন জরুরী পদক্ষেপও নিতে পারি না।

লক্ষণ ১ ( অবসাদ )

হার্ট অ্যাটাক হওয়ার অন্যতম প্রধান লক্ষন এটি। সব সময় এই অবসাদ কে আমরা সাধারন ভাবে নিয়ে থাকি ও মনে করে থাকি সময়ের সাথে এটি ঠিক হয়ে যাবে। যখন আপনার হার্ট অ্যাটাক হওয়ার সম্ভাবনা থাকে তখন আপনি যে কোন ছোট ছোট বিষয়ে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পরেন ও কোন কিছুই আর ভাল লাগে না বা সব সময় বিরক্ত বোধ হতে থাকে। মহিলাদের ক্ষেত্রে এই সমস্যাটি বেশি দেখা যায়।

লক্ষণ ২ ( পেটে ব্যথা )

হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ১ মাস আগে থেকে নিয়মিত পেটে ব্যথা শুরু হয়। যে কোন কারণ ছাড়ায় পেটে ব্যথা ব্যথা ভাব, গ্যাস বা পাতলা পায়খানা হওয়া, আর ঠিক হওয়ার দুই বা তিন দিন পর আবার ঠিক আগের অবস্থায় ফিরে আসা এর খুব সাধারণ লক্ষণ।

লক্ষণ ৩ ( উত্তেজনা )

হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ১ মাস আগে থেকে অতিরিক্ত উত্তেজনা দেখা দেয়, এই অতিরিক্ত উত্তেজনা মহিলাদের থেকে পুরুষদের থেকে বেশি দেখা দেয়। এ সময় ব্যাক্তি যে কোন বিষয়ে অতিরিক্ত উত্তেজিত হয়ে পরে ও তখন তার মাথা ঘুরে, বমি বমি ভাব হয়।

লক্ষণ ৪ ( অতিরিক্ত ঘাম )

হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ১ মাস আগে থেকে অতিরিক্ত ঘাম দেখা দেয়। এই ঘাম যে শুধুমাত্র গরম লাগলে হয় তা নয় বরং বসে থেকেও হতে থাকে ও বেশি বেশি গরম অনুভব হয়।

লক্ষণ ৫ ( বুক ব্যথা )

বুক ব্যথা হার্ট অ্যাটাক হওয়ার ১ মাস আগে থেকে নিয়মিত শুরু হয়। বুকের মধ্যে এক ধরনের চিন চিন ব্যথা করে, বিশেষ করে রাতে এই ধরনের ব্যথা বেশি অনুভব হয়। এই সময় এমন মনে হয়, যে শ্বাস নিতে কষ্ট হচ্ছে ও হার্ট সাধারণের থেকে বেশি বা কম গতিতে কাজ করছে।

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।